Full width home advertisement

বাছাই খবর

প্রযুক্তি পরামর্শ

অ্যাপস

Post Page Advertisement [Top]

ইমরুলের সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জিং স্কোর

ইমরুলের সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জিং স্কোর
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ইমরুল কায়েসের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৮ উইকেটে ২৭১ রান।
রোববার মিরপুরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। টাইগার ওপেনার ইমরুল কায়েসের ১৪০ বলে ১৪৪ রান ও তরুণ পেস অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের ৫০ রানের দুর্দান্ত ইনিংসের উপর ভর করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে শেষে জিম্বাবুয়েকে ২৭২ রানের টার্গেট দিয়েছে টাইগাররা।
ওয়ানডে ক্রিকেটে ইমরুল কায়েসের এটি তৃতীয় সেঞ্চুরি। তিনি সর্বশেষ সেঞ্চুরি করেছিলেন ২০১৬ সালের ৭ অক্টোবর। মিরপুরে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওই ম্যাচে ১১২ রান করেছিলেন তিনি। ২০১০ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি ক্রাইস্টচার্চে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি করেছিলেন কায়েস।
এদিকে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। এশিয়া কাপে টপ অর্ডারদের সেই ব্যর্থতার চিত্র যেন ফিরে আসে মিরপুরে। ম্যাচ শুরু হতে না হতেই দুই উইকেট পড়ে যায় বাংলাদেশের। ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারে টেন্ডাই সাতারার বলে চেফাস ঝুওয়াও এর হাতে ধরা পড়েন লিটন দাস। ১৪ বল খেলে চার রান করেন তিনি।
এই ওভারের শেষ বলে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ হন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামা রাব্বী। চার বল খেলে শূন্য রান করেন তিনি। দুই উইকেট পড়ে যাওয়ার পর ৪৯ রানের পার্টনারশিপ গড়েন ইমরুল কায়েস ও মুশফিকুর রহিম। জুটি ৪৯ রানের হলেও মুশফিকুর রহিম ব্যক্তিগত ১৫ রানে সাজঘরে ফিরে যান। ইনিংসের ১৫তম ওভারে ব্রান্ডন মাভুতার বলে উইকেটরক্ষক ব্রেন্ডন টেইললের হাতে ক্যাচ হন তিনি।
এরপর ৭১ রানের পার্টনারশিপ গড়েন ইমরুল কায়েস ও মোহাম্মদ মিথুন। দুজন দারুণ খেলছিলেন। একের পর এক চার ছক্কা মেরে দলের রানটা দ্রুত এগিয়ে নিচ্ছিলেন। তাদের ব্যাটিং দেখে মনে হচ্ছিল দলের রান হয়তো ৩০০ এর কাছাকাছি হবে। কিন্তু দলীয় ১৩৭ রানে ভেঙে যায় এই জুটি। তারপর আবার ভাঙন শুরু হয়।
কাইল জারভিসের করা ইনিংসের ২৮তম ওভারের দ্বিতীয় বলে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ হন মোহাম্মদ মিথুন। তিনি করেন ৩৭ রান। ওভারের শেষ বলে উইকেটরক্ষকের হাতে ধরা পড়েন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ৩০তম ওভারে কাইল জারভিসের বলে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান মেহেদী হাসান মিরাজ।
এরপর সপ্তম উইকেট জুটিতে ১২৭ রানের পার্টনারশিপ গড়েন ইমরুল কায়েস ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। ওয়ানডেতে সপ্তম উইকেট জুটিতে কায়েস-সাইফউদ্দিনের এই জুটিই এখন সেরা। ৪৯তম ওভারে কাইল জারভিসের বলে পিটার মুরের হাতে ক্যাচ হন ইমরুল কায়েস। ৫০তম ওভারে টেন্ডাই সাতারার বলে ব্রান্ডন মাভুতার হাতে ক্যাচ জন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন।

No comments:

Post a Comment

Bottom Ad [Post Page]