Full width home advertisement

বাছাই খবর

প্রযুক্তি পরামর্শ

অ্যাপস

Post Page Advertisement [Top]

পবিত্রতার মায়া ঘেরা ‘ধুপপানি ঝর্ণা’

পবিত্রতার মায়া ঘেরা ‘ধুপপানি ঝর্ণা’
ধুপপানি ঝর্ণা এই মুহূর্তে বাংলাদেশের সুন্দর ঝর্ণাগুলোর মধ্যে এটি একটি। এই ঝর্ণার নিচে একটা গুহার মত আছে। আর ঝর্ণার নিচের এই গুহাটাতে বসলে মনে হয় যেন অন্য কোন জগতে চলে গেছি। 
প্রায় ২০০ ফুট উচু হতে ৬ ফুট উচ্চতার প্রায় ১৫ ফুট ব্যাস নিয়ে শুভ্র আকার ধারণ করে ঝাপিয়ে পড়ছে দানবীয় রূপে। পরিপূর্ণ এক ট্রেকিং এটি। ভয়, ঝুঁকি, শিহরণ, উচ্ছ্বাস, চমক, সৌন্দর্য কী নেই! 
এই ঝর্ণার উপরের পাশে এক জায়গায় একজন ভান্তে ধ্যান করেন। তাই যারাই এখানে যাবেন খেয়াল রাখবেন যেন আপনার দ্বারা তার ধ্যানের যেন কোন ক্ষতি না হয়। এখানে যেয়ে চিৎকার-চেঁচামেচি করবেন না।
যেভাবে যাবেন- 
যেখানে অাসা যত কঠিন সেখানে যেন তত বেশি সৌন্দর্য অপেক্ষা করে। ধুপপানি ঝর্ণায় অাসা সত্যি অনেক কঠিন, এখানে পরিচর্যা, রাস্তা তৈরি, রশি বাধা, পথ তৈরি কিছুই নেই। জীবন বাজি রেখে ঝুঁকি নিয়ে এখানে অাসতে হয়। অানাড়ি, ভীতু এবং দূর্বলচিত্তের কারো না অাসা উত্তম।
যাওয়ার পথ- 
ঢাকা থেকে বাসে করে কাপ্তাই জেটিঘাট। ভাড়া ৫৫০ টাকা করে। সেখান থেকে ট্রলার রিজার্ভ করে চলে যাবেন। উলুছড়ি থেকে ট্রেক শুরু করার পানিপথটুকু পার হতেও অল্প কিছু টাকা নেবে এবং গাইড নেবে ৭০০ টাকা।
কাপ্তাই থেকে প্রায় ২ ঘণ্টার বোট করে বিলাইছড়ি, বিলাইছড়ি থেকে প্রায় ২ ঘণ্টা ৩০মিনিট বোট করে উলুছড়ি, উলুছড়ি থেকে ৩০ মিনিটের খোসা নৌকা করে পাহাড়। পাহাড়ি পথে উঁচু-নিচু কঠিন ট্রেকিং প্রায় ২ ঘণ্টা ৩০ মিনিটের যা অাপনাকে হাঁপিয়ে তুলবে। এসে পৌঁছবেন ধুপপানি পাড়া।  
এখান থেকে ঝর্ণার অাওয়াজ শুনা যায়। পুরো পথে শুধু ধুপপানি পাড়ায় একটি খাওয়ার দোকান। অন্য কোথাও কোনো অাহারের সুযোগ নেই। 
ধুপপানি পাড়া থেকে নামতে হবে খাড়া ৭০০/৮০০ ফুট যা কমপক্ষে ৩০ মিনিটের ধাক্কা।
এমন উচু, শুভ্র, হিংস্র, ক্ষিপ্র, তেজদ্বীপ্ত, যৌবনময়, রুপসী ঝর্ণা জীবনে দেখিনি। কোনো বিশেষন দিয়ে শেষ করা যায় না এই ঝর্ণার।
সতর্কতা : রবি এবং টেলিটক ছাড়া নেটওয়ার্ক পাবেন না বিলাইছড়িতে। ধুপপানি ঝর্ণা ওখানকার মানুষের পবিত্র স্থান। একজন বৌদ্ধ সাধক ঝর্ণার উপরের গুহাতে সপ্তাহে ৬ দিন ধ্যান করেন। ৬ দিন না খেয়ে থাকেন এবং রবিবার খাওয়ার জন্যে পাড়াতে আসেন। ওখানে গিয়ে এমন কিছু করা উচিত না যেটা তাদের পবিত্রতা ক্ষুন্ন করবে। আর ময়লা যত্রতত্র ফেলবেন না।

No comments:

Post a Comment

Bottom Ad [Post Page]